শনিবার, ০৪ জুলাই ২০২০, ০৩:০১ অপরাহ্ন
Title :
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অবদান পাটকল শ্রমিকদের বঞ্চনার অবসান প্রধানমন্ত্রীর প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকলের শ্রমিকদের শতভাগ পাওনা পরিশোধে প্রেস কনফারেন্স খুমেক হাসপাতালে আরো ৯৩‌ জনের করোনা শনাক্ত খুলনায় দুই গৃহবধুর আত্মহত্যা, আটক ১ খুলনায় রেড জোনে বিধি নিষেধ ও স্বাস্থ্যবিধি অমান্য করার অপরাধে ৯ মামলায় ১০ হাজার ৬শ টাকা জরিমানা খুলনার রূপসায় রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় মুক্তিযোদ্ধার দাফন সম্পন্ন খুলনার পাইকগাছায় ৬ জুয়াড়ী আটক ‍‍‍‍‍‍‍‍‍‍‍‍‍‍‍‍‍‍‍‍‍‍‍‍‍‍‍‍‍‍‍‍‍‍করোনা পরিস্থিতিতে সরকারের ‍‍‍‍‍‍‍‍‍‍‍‍‍‍‍‍‍‍‍‍‍‍‍‍‍‍‍‍‍‍‍‍‍‍‍‍‍‍‍‍‍ত্রাণ সহায়তা অব্যাহত সংসদের সামনে বাজেটের কপি ছেঁড়া বিএনপি’র ঔদ্ধত্যের নতুন বহিঃপ্রকাশ — তথ্যমন্ত্রী ফকিরহাটের ভৈরবে একটি পাইপের কারনে কমতে পারে নদীর নাব্যতা

দেশের চরম দূঃসময়ে আম্পানে ক্ষতিগ্রস্ত ১১শ কোটি টাকা

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট টাইম বৃহস্পতিবার, ২১ মে, ২০২০
  • ১৫ জন সংবাদটি পড়েছেন

সদ্য সমাপ্ত হওয়া ঘূর্ণিঝড় ‘আম্পানের’ কারণে দেশের ২৬ জেলায় এই র্পযন্ত প্রায় ১ হাজার ১শ কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতির হিসাব মিলেছে। এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে সাতক্ষীরা, বাগরেহাট, পটুয়াখালী, ও বরগুনা জেলা। এসব তথ্য জানিয়েছেন র্দুযোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতমিন্ত্রী মো. এনামুর রহমান। গতকাল বৃহস্পতিবার বিকালে সচবিালয়ে র্ঘূণঝিড় আম্পান পরর্বতী সার্বিক বিষয়ে অনলাইনে সাংবাদিকদের ব্রিফিংকালে এসব কথা বলেন প্রতমিন্ত্রী। তিনি আরো বলেন, এসব জেলায় ঘরবাড়ি প্রচুর ক্ষয়ক্ষতি ও নষ্ট হয়ছেে । ক্ষতিগ্রস্ত ঘরবাড়ি সংস্কার ও নির্মাণে প্রতি জেলায় ৫শ বান্ডিল টিন এবং ১৫ লাখ টাকা বরাদ্ধ দেওয়া হয়ছে। এ ছাড়া ত্রাণের জন্য র্পযাপ্ত চাল ও নগদ টাকা বরাদ্ধ দেওয়া হয়ছেে ।এনামুর রহমান বলেন, সাতক্ষীরা, বাগরেহাট ও পটুয়াখালীতে পাট, আম, লিচু ও মুগ ডালের ব্যাপক ক্ষতি হয়ছে। ধানের তেমন ক্ষতি হয়নি। তবে প্রায় ১৫০ কোটি টাকার আমের ক্ষতি হয়ছে। এ ছাড়া ২শ টি ব্রিজ ও কালর্ভাট ক্ষতগ্রিস্ত হয়েছে, যার বেশির ভাগ বাগরেহাট, সাতক্ষীরা ও খুলনা জেলায়। প্রতমিন্ত্রী বলেন বিদ্যুৎ বিভ্রাটের কারণে অনেক জায়গায় ডাক বিভাগের টেলিফোন লাইনগুলো বিচ্ছিন্ন রয়েছে যা শিগগির মেরামত করা হবে। এনামুর রহমান বলেন যেহেতু এবার প্রচুর সংখ্যক গবাদি পশুকে নিরাপদ আশ্রয় কেন্দ্রে নেয়া সম্ভব হয়েছিল, তাই প্রাণিসম্পদের তেমন ক্ষয়ক্ষতি হয়নি । তবে মৎস্য চাষের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে । চিংড়ি ঘের ক্ষতগ্রিস্ত হয়ছেে , যার র্অথমূল্য প্রায় ৩২৫ কোটি টাকা। এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন মন্ত্রণালয়ের জেষ্ঠ্য সচিব মো. শাহ কামাল এবং দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধদিপ্তরের মহাপরিচালক  মোহাম্মদ মহসিন।

সংবাদটি শেয়ার করুন : ধন্যবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ ধরনের আরো সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক : মো: রবিউল ইসলাম তোতা

প্রধান কার্য্যালয় : রামনগর পূর্ব রূপসা, রূপসা, খুলনা

আমাদের রূপসী ইউটিউব চ্যানেল

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া কপি রাইট বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Hwowlljksf788wf-Iu