রবিবার, ২৪ অক্টোবর ২০২১, ০১:১৩ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম

কুয়েতে মানব পাচারের অভিযোগে আটককৃত সাংসদ পাপুলকে রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ !

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট টাইম বৃহস্পতিবার, ১১ জুন, ২০২০
  • ২৬৮ জন সংবাদটি পড়েছেন

বাংলাদেশের জাতীয় সংসদে ঠিক যখন বাজেট ঘোষনা করা হচ্ছে ঠিক তখন মানবপাচারের অভিযোগে কুয়েতে গ্রেপ্তার হওয়া লক্ষীপুর-২ আসনের সংসদ সদস্য কাজী শহীদ ইসলাম ওরফে পাপুলকে রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ অব্যাহত রয়েছে।

গত শনিবার এমপি পাপুলকে আটক করে কুয়েতের সিআইডি (ক্রিমিনাল ইনভেস্টিগেশন ডিপার্টমেন্ট)। এতদিন সিআইডির হেফাজতে রেখেই তাকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। এবার অধিকতর জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তাকে রিমান্ডে নেওয়া হল। জানা যায়, তিনি প্রাথমিকভাবে মানবপাচার ও অবৈধ মুদ্রা পাচারের কথা স্বীকার করে নিয়েছেন।

শুরুতে পাঁচ অবৈধ বাংলাদেশি অভিবাসীকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করে কুয়েতের আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। তারা প্রত্যেকেই সাংসদ পাপুলকে ৩ হাজার দিনার করে দিয়েছেন। এছাড়া প্রতিবছর ভিসা নবায়নের জন্য মোটা অংকের টাকা দিতে হয় তাকে। ওই পাঁচজনের স্বীকারোক্তি অনুযায়ী গত শনিবার আটক করা হয় পাপুলকে। জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়, এমন অসংখ্য মানবপাচারের সঙ্গে জড়িত এই সংসদ সদস্য।

শনিবার (৬ জুন) স্থানীয় সময় রাত সাড়ে ৯টায় কুয়েতের অপরাধ তদন্ত বিভাগের (সিআইডি) সদস্যরা মুশরেফ আবাসিক এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করে বলে জানা যায়।

কুয়েতের বিভিন্ন সূত্রে জানা যায়, দেশটিতে করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব দেখা দেয়ার পর মানব পাচার ও অর্থ পাচারের অভিযোগে ১০০ জনেরও বেশি ব্যবসায়ী ও সংশ্লিষ্টদের গ্রেফতার করেছে সরকারের গোয়েন্দা বিভাগ। বাংলাদেশের এমপি কাজী পাপলুর নামও এই তালিকায় ছিল। কুয়েতে বিরাট ব্যবসা রয়েছে তার। মার্চ মাসের শেষ দিক থেকে কুয়েতেই অবস্থান করছেন তিনি।

এর আগে ফেব্রুয়ারি মাসে কুয়েতে মানব পাচারের সঙ্গে এমপি শহীদ ইসলাম পাপলুর সংশ্লিষ্টতা রয়েছে বলে বিভিন্ন পত্র-পত্রিকায় প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়।

কুয়েতের একটি গণমাধ্যমের প্রতিবেদনে বলা হয়, দেশটির নিরাপত্তা বিভাগ বাংলাদেশের একজন সংসদ সদস্যকে খুঁজছে যার অবৈধ ভিসার ব্যবসার সাথে সংশ্লিষ্টতা রয়েছে।

ওই প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, তার কোম্পানি যাতে সরকারের বিভিন্ন প্রকল্পের কাজ পায় সেজন্য বাংলাদেশের ওই সংসদ সদস্য উচ্চপদস্থ কর্মকর্তাদের ঘুষ হিসেবে ৫টি বিলাসবহুল গাড়ি উপহার দিয়েছেন।

উল্লেখ্য, সংসদ সদস্য কাজী শহীদ ইসলাম পাপুলের বিরুদ্ধে মানব পাচারের অভিযোগ তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। এ ব্যাপারে তিনি দুর্নীতি দমন কমিশনকে তদন্তের অনুরোধ জানাবেন বলেও জানান কাদের।

সংবাদটি শেয়ার করুন : ধন্যবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ ধরনের আরো সংবাদ

আমাদের রূপসী ইউটিউব চ্যানেল

সম্পাদক ও প্রকাশক : মো: রবিউল ইসলাম তোতা

প্রধান কার্য্যালয় : রামনগর পূর্ব রূপসা, রূপসা, খুলনা

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া কপি রাইট বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Hwowlljksf788wf-Iu