বুধবার, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৮:৪৯ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম
খুলনার রূপসায় র‌্যাবের অভিযানে ২টি পাইপগান ৩ রাউন্ড গুলিসহ ৩ শীর্ষ সন্ত্রাসী আটক ডুমু‌রিয়া উপ‌জেলা এস‌ডি‌জি ফোরাম গঠন খুলনায় দ্বিতীয় শ্রেণীর শিশু শিক্ষার্থী ধর্ষণের শিকার সরকারি ভাতা বই হাতে পেয়ে প্রতিবন্ধী  মকবুলের যেন আনন্দের আর সীমা নেই খুলনার রূপসায় ভাঙছে নদীর বাঁধ, কৃষি জমি বিলীন হওয়ার আশংকায় কয়েক হাজার কৃষক রূপসায় দলিত কল্যান সংস্থার প্রতিষ্টা বার্ষিকী পালিত রূপসায় রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির উদ্যোগে ভ্রাম্যমান স্বাস্থ্যসেবা প্রদান রূপসায় বিভিন্ন সংগঠনের উদ্যেগে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্মদিন পালিত ফকিরহাটের মূলঘরে স্বাস্থ্য সুরক্ষা সামগ্রী বিতরণ খুলনার ফুলতলা থানা এলাকা হতে পরিত্যক্ত অবস্থায় পাইপগান উদ্ধার

ডুমুরিয়া উপজেলা পরিষদ ক্যাম্পাস অরক্ষিত \ গভীর রাতেও বহিরাগত লোকের চলাচল

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট টাইম মঙ্গলবার, ৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০
  • ২৭৭ জন সংবাদটি পড়েছেন

ডুমুরিয়া ( খুলনা) প্রতিনিধিঃ  খুলনা জেলার ডুমুরিয়া উপজেলা পরিষদ ক্যাম্পাসের নিরাপত্তায় প্রয়োজনীয় সীমানা প্রাচীর নেই। তাছাড়া উপজেলা চেয়ারম্যান ও নির্বাহি অফিসারের বাসভবনের সীমানা প্রাচীর ঘেষে প্রভাবশালী ব্যক্তিরা রাতদিন চলাফেরা করে। পরিচিত অপিরিচিত মানুষের চলাচলের কারণে ঝুকিঁতে রয়েছেন উপজেলা প্রশাসনের শীর্ষ এই দুইজনসহ প্রথম শ্রেণির অনেক কর্মকর্তা। পরিবার পরিজন নিয়ে বসবাসকারী এসব কর্মকর্তাদের মধ্যে দেখা দিয়েছে চরম নিরাপত্তার অভাব।

উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, আরাজি সাজিয়াড়া ও ডুমুরিয়া মৌজার বিভিন্ন দাগ, খতিয়ানে উপজেলা পরিষদ ও উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কার্যালয়ের মোট ১৪ দশমিক ৩৪ একর জমি রয়েছে। পূর্ব-পশ্চিম দৈর্ঘ্য আর উত্তর-দক্ষিন প্রস্থ সীমানার মধ্যে স্বাস্থ্য ও প্রাণিসম্পদ দপ্তর ব্যাতিত সকল দপ্তরের অফিস, উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও উপজেলা নির্বাহী অফিসারের বাস ভবন সহ কর্মকর্তা-কর্মচারীদের জন্য ৪টি করে ফ্লাট সম্বলিত ৬ টি স্টাফ কোয়ার্টার, ২০ জন জনের বসবাস উপযোগী একটি ডরমেটরি ,কর্মজীবী নারীদের জন্যে একটি হোস্টেল রয়েছে।

উপজেলার স্টাফ কোয়ার্টারে বসবাসরত কর্মকর্তা কর্মচারীদের বাসা থেকে বিভিন্ন সময় মূল্যবান পন্য সামগ্রী টাকা পয়সা, মোটর সাইকেল, ভ্যান গাড়ী চুরির অহরহ ঘটনাও ঘটেছে। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ের পশ্চিম পাশ ঘেঁষে উত্তর দিকে সাধারণ মানুষের চলাচলের রাস্তা, বাসভবনের প্রধান ফটকের পশ্চিম পাশে ১০ গজের ভিতর এক জামায়াত নেতা, বিএনপি জোটের অপর এক নেতার বাসভবন। এছাড়া উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও উপজেলা নির্বাহি অফিসারের বাসভবনের পূর্ব পাশ দিয়ে প্রভাবশালী কমিউনিস্ট পাটির্র সাবেক এক নেতার বাসভবনে প্রবেশের গেট রয়েছে। তাছাড়া স্টাফ কোয়ার্টারের পিছনে খাল ও বিল রয়েছে যেখান দিযে মানুষ গভীর রাতে চলাফেরা করে। সরকারি নিয়ম অনুযায়ী উপজেলা নির্বাহী অফিসারের অফিস ও বাসুভবনের জন্য তিন জন নৈশ প্রহরী নিযুক্ত থাকলেও উপজেলা পরিষদের জন্য যথেষ্ট নয় বলে মনে করেন সংশ্লিষ্টরা।
স্টাফ কোয়ার্টারে বসবাসরত উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মো. মোছাদ্দেক হোসেন বলেন, উপজেলা পরিষদের নিরাপত্তার স্বার্থে চারিদিকে সীমানা প্রাচীর নির্মান করা জরুরী। তাছাড়া পরিষদে প্রবেশের সকল গেট গুলো এবং স্টাফ কোয়ার্টারে প্রবেশ পথে দুই স্তর বিশিষ্ট স্বশস্ত্র নিরাপত্তা ব্যবস্থা করা প্রয়োজন।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোছা: শাহানাজ বেগম জানান, উপজেলা পরিষদের বৃহত এলাকা জুড়ে সীমানা প্রাচীর নেই। অফিস সময়ের আগে পরে পরিষদের ভিতর দিয়ে দীর্ঘকাল যাবৎ অবাধে সাধারণ মানুষের চলাচলের রাস্তা থাকায় একটু নিরাপত্তা ঝুকি তো রয়েছে। তাছাড়া পরিষদেও নিজস্ব সরকারী জমি অনেক বেদখল হয়ে আছে। সেগুলো চিহ্নিত করে সীমানা প্রাচীর ও শক্তিশালী গেট নির্মান করার প্রক্রিয়া চলছে। ইতোমধ্যে বিষয়টি জেলা প্রশাসনকে অবহিত করা হয়েছে। সীমানা নির্ধারণ সম্পন্ন হলে পরবর্তী পদক্ষেপ নেয়া হবে। যদিও নিরাপত্তার স্বার্থে সরকার ইতোমধ্যে ৪ জন স্বশ্বস্ত্র আনসার ব্যাটেলিয়ান নিযুক্ত করেছেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন : ধন্যবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ ধরনের আরো সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক : মো: রবিউল ইসলাম তোতা

প্রধান কার্য্যালয় : রামনগর পূর্ব রূপসা, রূপসা, খুলনা

আমাদের রূপসী ইউটিউব চ্যানেল

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া কপি রাইট বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Hwowlljksf788wf-Iu