শনিবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৯:১৯ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম

মাটির নীচ থেকে ড্রেজার মেশিন দিয়ে বালু উত্তোলন \ হুমকিতে মন্দিরসহ অন্যান্য স্থাপনা

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট টাইম বুধবার, ৯ সেপ্টেম্বর, ২০২০
  • ২২২ জন সংবাদটি পড়েছেন

ডুমুরিয়া ( খুলনা) প্রতিনিধিঃ সরকারী নির্দেশনা অমান্য করে ডুমুরিয়া উপজেলার সাহস এলাকার বদ্ধ নদী থেকে অবৈধ ও বেআইনীভাবে ড্রেজার মেশিন দিয়ে বালু উত্তোলন করছে ঠিকাদার। পানির নীচ থেকে বালু উত্তোলন করায় স্যালোমেশিনের শব্দে স্থাণীয় অধবাসীরা যেমন শব্দ দূষনের কবলে পড়েছেন তেমনি বালু উত্তোলনের স্থানে মন্দির ভবনটিও পড়েছে ঝুঁকিতে।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, সাহস বাজার সংলগ্ন মন্দিরের পিছনে বদ্ধ নদী থেকে ড্রেজার মেশিন দিয়ে জনৈক ঠিকাদার বালু উত্তোলন করে সাহস- জয়খালী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পুকুর ভরাট করছে। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা রয়েছে যে কোন কারণে জলাশয়, খাল, পুকুর ভরাট করা যাবে না। এক্ষেত্রে তা মানা হচ্ছে না। উপজেলা প্রকৌশল অধিদপ্তর সাহস জয়খালী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় ভবনের কক্ষ সংস্কার ও পুকুর ভাটের জন্য প্রায় ৫ লাখ টাকা অর্থ বরাদ্দ দিয়েছেন। যার ঠিকাদার শেখ বদরুদ্দোজা বাবলু।

এলাকাবাসী জানান, স্থানীয় এক প্রভাবশালী আওযামী লীগ নেতার মদদে ঠিকাদার বাইরে থেকে বালি না এনে কম খরচে পাশের বদ্ধ নদী থেকে ড্রেজার দিয়ে বালু উত্তোলন করছে। ড্রেজার মেশিনের স্যালো ইঞ্জিনের বিকট শব্দে স্বাভাবিকভাবে কথা বলা যায় না। তাছাড়া নদীর তলদেশ থেকে বালি তোলায় সেখানে শূণ্যতা সৃষ্টি হচ্ছে ফলে যে কোন সময়ে ভূমি ধবস হতে পারে। মাটির নীচে চলে যেতে পারে মন্দিরসহ বাজারের অন্যান্য ভবন।

মন্ত্রি পরিষদ বিভাগের ম্যাজিস্ট্রেসী পরিবীক্ষন শাখার সিনিয়র সহকারি সচিব তৌহিদ এলাহী স্বাক্ষরিত এক পত্রে বলা হয়েছে সরকার ঘোষিত বালুমহল ব্যতিত বিভিন্ন স্থান থেকে বালি উত্তোলন করা হচ্ছে যা বেআইনী। ওই পত্রে আরও বলা হযেছে বালূমহল ব্যতিত অন্যান্য যে কোন স্থান থেকে ড্রেজার মেশিন দিয়ে বালি উত্তোলন বালুমহল ও মাটি ব্যবস্থাপনা আইন ২০১০ যথাযথভাবে অনুসরন না করে ড্রেজার ব্যবহার করে বালু উত্তোলন করা হচ্ছে। ফলে পরিবেশের ব্যাপক ক্ষতিসহ স্থাপনা ঝুকিপূর্ণ হয়ে পড়ছে। সে কারণে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন বন্ধ করা প্রয়োজন।
এ বিষয়ে ঠিকাদার শেখ বদরুদ্দোজা বাবলু বলেন, দরপত্রে কাজ আমি পেলেও কাজটি মূলত: অন্য একজনের কাছে হস্তান্তর করেছি। তারা ড্রেজার দিয়ে বালু উত্তোলন করছে কিনা আমার জানা নেই।

ডুমুরিয়া উপজেলা প্রকৌশলী বিদ্যুৎ কুমার দাশ বলেন, স্কুলের পুকুর ভরাট করতে মাটি ব্যবহার করতে বলা হয়েছে। ড্রেজার মেশিন দিয়ে নদীর তলদেশ থেকে বালি তুলে পুকুর ভরাট করছে কিনা আমার জানা নেই।
খুলনা জেলা প্রশাসক ও জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ হেলাল হোসেন এ বিষয়ে বলেন, সরকার ঘোষিত বালুমহল ব্যতিত অন্য যে কোন স্থান থেকে ড্রেজার দিয়ে বালু উত্তোলন বেআইনী। খোজ নিয়ে বালু উত্তোলনকারীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন : ধন্যবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ ধরনের আরো সংবাদ

আমাদের রূপসী ইউটিউব চ্যানেল

সম্পাদক ও প্রকাশক : মো: রবিউল ইসলাম তোতা

প্রধান কার্য্যালয় : রামনগর পূর্ব রূপসা, রূপসা, খুলনা

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া কপি রাইট বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Hwowlljksf788wf-Iu