রবিবার, ০৯ মে ২০২১, ০৪:২৩ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম
ডুমুরিয়ায় ছাদ থেকে পড়ে বীর মুক্তিযোদ্ধার মৃত্যু বাবা- মায়ের উপর অভিমান করে ডুমুরিয়ায় গলায় ফাঁস দিয়ে একমাত্র ছেলের আত্মহত্যা! ডুমুরিয়ায় স্কুল পড়ুয়া শিশু কন্যাকে ধর্ষণের চেষ্টা: থানায় মামলা রূপসায় অনুশীলন মজার স্কুলের নবনির্মিত ভবনের শুভ উদ্বোধন ও সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করোনা সংক্রমণ রোধে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা মেনে চলার আহ্বান সালাম মূর্শেদীর বঙ্গবন্ধুকে ইতিহাস থেকে মুছে ফেলার জন্য নানাবিধ অপকৌশল অব্যাহত রয়েছে-রূপসায় সালাম মূর্শেদী বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের আদ্যপান্ত রূপসায় ব্যাচ ৯৫ সংগঠনের ইফতার মাহ্ফিল অনুষ্ঠিত মাটি খনন কালে ডুমুরিয়ার আটলিয়া থেকে পাথরের কৃষ্ণ মুর্তি উদ্ধার। ডুমুরিয়ায় শিল্পপতি আফজাল হোসেন জোয়ার্দারের উদ্যোগে উপহার সামগ্রী বিতরণ

খুলনায় অবৈধ দখলদার উচ্ছেদ অভিযান বন্ধ , পাউবো নোটিশ দিয়েই দায়িত্ব শেষ

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট টাইম শুক্রবার, ২৫ সেপ্টেম্বর, ২০২০
  • ২৪৭ জন সংবাদটি পড়েছেন

ডুমুরিয়া (খুলনা) প্রতিনিধিঃ খুলনা মহানগর ও জেলার বিভিন্ন উপজেলায় নদী, খাল, সড়কসহ সরকারী সম্পত্তি অবৈধ দখল মুক্ত করতে কাজ শুরু করে খুলনা সিটি কর্পোরেশন, জেলা প্রশাসন ও পানি উন্নয়ন বোর্ড। কিন্তু মার্চ মাসে দেশে করোনা ভাইরাস সংক্রমন ধারা পড়ায় সরকার সাধারণ ছুটি ঘোষনা করে। কয়েক দফা ছুটি বাড়ানো হয়। এজন্য সরকারের অন্যান্য স্বাভাবিক কার্যক্রম যেমন বন্ধ হয়ে যায় তেমনি অবৈধ দখলদার উচ্ছেদ কার্যক্রম থমকে যায়।

এদিকে তদারকি না থাকায় অবৈধ দখলদার উচ্ছেদ করা হলেও অনেকে আবার সেসব স্থানে পুনরায় স্থাপনা তৈরি করছে। আর এসব দখলদারদেও বিরুদ্ধে পাউবে ( পানি উননয়ন বোর্ড) দখলদারদেও একটি নোটিশ দিয়েই তাদের দায়িত্ব শেষ করে।

সরকার গত মাসে সবকিছুই স্বাভাবিক করে দিয়েছে। তাই এখন জনসাধারনের দাবি উঠেছে পুনরায় অবৈধ দখলদার উচ্ছেদ অভিযান শুরু করার। এলাকাবাসীর দাবি পানি উন্নয়ন বোর্ডের যোগসাজশে এক শ্রেনীর দখলবাজ চক্র নদীর পাড় দখল করে স্থাপনা তৈরি করেছে। যে কারণে খুলনা নগরীর ২৬টি খাল দখলমুক্ত এবং নগরীর পাশ দিয়ে বয়ে চলা বটিয়াঘাটা ও ডুমুরিয়া উপজেলা সীমান্তের ময়ূর নদী দখলমুক্ত করতে এ উচ্ছেদ অভিযান শুরু হয়। অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদের সিদ্ধান্তে আমরা এলাকাবাসী সঙ্গে আছি। অবৈধ দখলদারদের উচ্ছেদ অভিযান থমকে যাওয়া খুবই দুঃখজনক।

খুলনা পানি উন্নয়ন বোর্ডের (পাউবো) হিসেব মতে পানি উন্নয়ন বোর্ডেও জমি দখলদার দুই হাজারের উপরে। এরমধ্যে বেশি দখলদার আড়ংঘাটা শলুয়া, শাহাপুর, থুকড়া, কুলবাড়িয়া, খর্নিয়া, মিকশিমিল, ডুমুরিয়া সদর, আমভিটা, বটিয়াঘাটার কৈয়া বাজার, সাচিবুনিয়া, সাহস, রাজবন্দ, কৃষ্ণনগর, চক আসানখালীসহ বিভিন্ন স্থানের জমি এসব দখলদাররা নিয়ন্ত্রণ করছে। দখলদাররা অধিকাংশই প্রভাবশালী। তারা দখলকৃত জমিতে ইতোমধ্যেই বহুতল ভবন, মার্কেট, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান, মৎস্য খামার, মাছের ডিপো, মিল, কল-কারখানা, ইটভাটা নির্মাণ করছে। দখলদারদের বিরুদ্ধে মৌখিক এবং লিখিত নোটিশ প্রদান করলেও কোনও কাজে আসছে না। তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থাও নিতে পারছে না পাউবো কর্তৃপক্ষ। রাজনৈতিক হস্তক্ষেপের কারণে উচ্ছেদ অভিযানও বাধাগ্রস্ত হয়। ফলে এসব দখলদারদের তালিকা করেই দায়িত্ব পালন শেষ করতে হচ্ছে খুলনা পানি উন্নয়ন বোর্ডকে।

পানি উন্নয়ন বোর্ড, খুলনার নির্বাহী প্রকৌশলী, পলাশ কুমার ব্যানার্জী বলেন অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ অভিযান বন্ধ হয়নি। অবৈধ স্থাপনার তালিকা ধরে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করা হচ্ছে। পর্যায়ক্রমে সব স্থাপনা উচ্ছেদ করা হবে।
খুলনা জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ হেলাল হোসেন। খুলনা মহানগরীর পাশ দিয়ে বয়ে চলা ময়ূর নদীর দখলদার উচ্ছেদ করা হয়েছে। পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে আবারও উচ্ছেদ অভিযান শুরু হবে জানালেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন : ধন্যবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ ধরনের আরো সংবাদ

আমাদের রূপসী ইউটিউব চ্যানেল

সম্পাদক ও প্রকাশক : মো: রবিউল ইসলাম তোতা

প্রধান কার্য্যালয় : রামনগর পূর্ব রূপসা, রূপসা, খুলনা

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া কপি রাইট বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Hwowlljksf788wf-Iu