বৃহস্পতিবার, ০৪ মার্চ ২০২১, ০৬:৩৩ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম
ডুমুরিয়ায় ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযানে অবৈধ ভাবে বালু উত্তোলনকারীকে জরিমানা রূপসায় স্বাধীনতা শিক্ষক পরিষদের দ্বি-বার্ষিক সম্মেলনে পলাশ সভাপতি, মনিরুজ্জামান সম্পাদক, হায়দার কোষাধ্যক্ষ ডুমুরিয়ায় যুব উন্নয়ন দপ্তর আয়োজনে প্রশিক্ষণ কর্মশালা ও ঋণের চেক বিতরণ ডুমুরিয়ায় গাঁজাসহ মাদক ব্যাবসায়ী ও পরোয়ানাভূক্ত আসামী গ্রেপ্তার -৮ নগরীতে নারী নির্যাতন এবং বাল্যবিয়ে প্রতিরোধ প্লাটফর্ম সদস্যদের দক্ষতা উন্নয়ন প্রশিক্ষণ খুলনার দিঘলিয়ায় শিশু তামিম মোল্লা হত্যার ঘটনায় ২জন আটকঃ৭দিনের রিমান্ডের আবেদন পাইকগাছায় গেটের পাট ভেঙ্গে লবণ পানিতে এলাকা প্লাবিত : বোরো ধানের ব্যাপক ক্ষতি কর্মতৎপরতা ও দক্ষতার জন্য জেলার শ্রেষ্ঠ চেয়ারম্যানের পুরস্কার পেলেন পাইকগাছার কওসার ও রিপন বর্তমান সরকার জাতি,ধর্ম,বর্ণ নির্বিশেষে উন্নয়নের ধারা অব্যহত রেখেছে- রূপসায় এ্যাড. সুজিত ডিজিটাল ভূমি ব্যবস্থাপনায় বিশেষ অবদানের জন্য পুরস্কিত হলেন পাইকগাছার ইউএনও

ডুমুরিয়া গাফ্ফার সড়কে অব্যবস্থাপনার কারনে উজাড় হচ্ছে নারকেল গাছ

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট টাইম সোমবার, ২৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০
  • ১৫৭ জন সংবাদটি পড়েছেন

ডুমুরিয়া প্রতিনিধিঃ  ডুমুরিয়ার সাথে এক সময়ের যোগাযোগ স্থাপনকারী সাজিয়াড়া শেয়ার ঘাট ( নৌকা) থেকে থুকড়া পর্যন্ত খালের পাড়ে বিগত ৮০এর দশকে তৎকালিন মন্ত্রী লে. কর্নেল এইচ এম গাফ্ফার ( বীর উত্তম) একটি সড়ক নির্মাণ করেন। সেই সড়কের পাশে এলজিইডি (স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর) প্রায় ১১ শত নারকেলের চারা রোপন করে। সেই চারা বড় হয়ে দৃষ্টিনন্দন সড়কে রূপ নেয়। বিকেল হলেই বিভিন্ন বয়সী নারী, পুরুষ বিনোদনের আশায় সড়কের পাশে নারকেল বাগানে বসে সময় কাটায়।

এ সকল গাছ দেখভালের দায়িত্ব পালন করত এলজিইডি। তারা গাছের পরিচর্যাসহ সৌন্দর্যবর্ধন করতে ইজারা দিত। কিন্তু গত ২ বছর ইজারা দেয়া হয় না। সেটি এলজিইডির সহকারী প্রকৌশলী মো: আব্দুর রহমান ও এক নারী শ্রমিক এটি ব্যক্তিগত সম্পদ হিসেবে গাছের ডাব, পাতা বিক্রি করে দেয়। এছাড়া গাছ কেটে বিক্রি করে দেয়ারও অভিযোগ রয়েছে। ইতোমধ্যৈ দেড়শতাধিক নারকেল গাছের কোন হদিস নেই। এরই ধারাবাহিকতায় গত দুদিন আগে ওই সড়কের পাশে অবস্থিত মাধবকাঠি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পাচিল নির্মাণের নামে নারকেল গাছ কেটে ফেলা হয়। নিয়ম অনুযায়ী ফলবান বা জীবিত কোন গাছ কাটতে হলে বনবিভাগের অনুমতি নিতে হয়। এক্ষেত্রে তা করা হযনি।

এ বিষয়ে ডুমুরিয়া উপজেলা প্রকৌশলী বিদ্যুত কুমার দাশ বলেন, জনবলের অভাবে গাছের দেখাশুনা করা যায়নি। ইজারা কেন বন্ধ এমন প্রশ্নের জবাবে বলেন, দ্রুততম সময়ের মধ্যে ইজারা দেয়ার প্রক্রিয়া গ্রহণ করা হবে। সম্প্রতি গাছ কাটা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, স্কুলের প্রাচিরের গেট তৈরি করতে একটি গাছ কাটা হয়েছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন : ধন্যবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ ধরনের আরো সংবাদ

আমাদের রূপসী ইউটিউব চ্যানেল

সম্পাদক ও প্রকাশক : মো: রবিউল ইসলাম তোতা

প্রধান কার্য্যালয় : রামনগর পূর্ব রূপসা, রূপসা, খুলনা

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া কপি রাইট বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Hwowlljksf788wf-Iu