বৃহস্পতিবার, ০৪ মার্চ ২০২১, ০৫:৫৫ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম
ডুমুরিয়ায় ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযানে অবৈধ ভাবে বালু উত্তোলনকারীকে জরিমানা রূপসায় স্বাধীনতা শিক্ষক পরিষদের দ্বি-বার্ষিক সম্মেলনে পলাশ সভাপতি, মনিরুজ্জামান সম্পাদক, হায়দার কোষাধ্যক্ষ ডুমুরিয়ায় যুব উন্নয়ন দপ্তর আয়োজনে প্রশিক্ষণ কর্মশালা ও ঋণের চেক বিতরণ ডুমুরিয়ায় গাঁজাসহ মাদক ব্যাবসায়ী ও পরোয়ানাভূক্ত আসামী গ্রেপ্তার -৮ নগরীতে নারী নির্যাতন এবং বাল্যবিয়ে প্রতিরোধ প্লাটফর্ম সদস্যদের দক্ষতা উন্নয়ন প্রশিক্ষণ খুলনার দিঘলিয়ায় শিশু তামিম মোল্লা হত্যার ঘটনায় ২জন আটকঃ৭দিনের রিমান্ডের আবেদন পাইকগাছায় গেটের পাট ভেঙ্গে লবণ পানিতে এলাকা প্লাবিত : বোরো ধানের ব্যাপক ক্ষতি কর্মতৎপরতা ও দক্ষতার জন্য জেলার শ্রেষ্ঠ চেয়ারম্যানের পুরস্কার পেলেন পাইকগাছার কওসার ও রিপন বর্তমান সরকার জাতি,ধর্ম,বর্ণ নির্বিশেষে উন্নয়নের ধারা অব্যহত রেখেছে- রূপসায় এ্যাড. সুজিত ডিজিটাল ভূমি ব্যবস্থাপনায় বিশেষ অবদানের জন্য পুরস্কিত হলেন পাইকগাছার ইউএনও

কুড়িগ্রামে ইউপি চেয়ারম্যান বাল্য বিয়ে করে চমক সৃষ্টি করলেন !

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট টাইম সোমবার, ২ নভেম্বর, ২০২০
  • ১৪৪ জন সংবাদটি পড়েছেন
সোনালী ডেক্সঃ কুড়িগ্রামে সরকারি নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে ৯ম শ্রেণী পড়ুয়া এক শিক্ষার্থীকে বিয়ে করে চরম চাঞ্চল্যের সৃষ্টি করেছেন ৪৫ বছর বয়সী এক ইউপি চেয়ারম্যান। ৩য় বারের মত বিয়ের পিড়িতে বসায় সমালোচনার মুখে পড়েছেন সেই চেয়ারম্যান।
ঘটনাটি ঘটিয়েছেন কুড়িগ্রাম জেলার উলিপুর উপজেলার বুড়াবুড়ি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আবু তালেব সরকার। সরকার বাল্য বিয়ে মুক্ত ঘোষণা করার পরও একজন ইউপি চেয়ারম্যান নিজেই কিভাবে বাল্য বিয়ে করতে পারেন তা নিয়ে জনমনে নানা প্রশ্নের জন্ম হয়েছে।
স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ইউনিয়নের দোলন গ্রামের প্রতিবন্ধি বাচ্চু মিয়ার ৯ম শ্রেণী পড়ুয়া বকসীগঞ্জ উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী বন্নি আক্তারের উপর নজর পড়ে ইউপি চেয়ারম্যান আবু তালেব সরকারের। এরপর ওই শিক্ষার্থীকে নানাভাবে ফুসলিয়ে তার সাথে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলেন এবং হতদরিদ্র মেয়ের পরিবারটিকে আর্থিক সহায়তার প্রলোভন দেখাতে থাকেন। এরই এক পর্যায়ে গত রোববার রাতে মেয়েটির পরিবারের লোকজন চেয়ারম্যানের সাথে তার বিয়ে দেন। ব্যক্তিগত জীবনে ইউপি চেয়ারম্যান আবু তালেব সরকারের এক স্ত্রী ও কলেজ পড়ুয়া এক কন্যা সন্তান রয়েছে। তবে এর আগেও তিনি আরো একটি বিয়ে করলেও সেটি বেশি দিন টিকেনি। চেয়ারম্যানের ৩য় বিয়ের একটি ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক ছড়িয়ে পড়ায় এলাকায় ব্যাপক সমালোচনার ঝড় উঠেছে। সদ্য নির্বাচিত ইউপি চেয়ারম্যান প্রকাশ্যে বাল্যবিয়ে করলেও প্রশাসন কোন আইনগত ব্যবস্থা না নেয়ায় জনমনে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়েছে।
বকসীগঞ্জ উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মেহেরুজ্জামান বলেন, ওই শিক্ষার্থী আমার স্কুলের মানবিক বিভাগের ৯ম শ্রেণীতে লেখা পড়া করছে। বিয়ে হবার কথাটি আমি বিভিন্ন লোক মুখে  শুনতে পেরেছি।
এ বিষয়ে ইউপি চেয়ারম্যান আবু তালেব সরকারের সাথে যোগাযোগ করার চেষ্টা করেও তাকে পাওয়া যায়নি।
সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও ভারপ্রাপ্ত উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আশরাফুল আলম রাসেল বলেন, যেহেতু বাল্য বিবাহ হয়ে গেছে, সেখানে মোবাইল কোর্ট করার সুযোগ নেই। তবে এ বিষয়ে লিখিত অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।
পাবলিক প্রসিকিউটর এসএম আব্রাহাম লিংকন বলেন, কেউ আইনের উর্দ্ধে নয়। বাল্য বিয়ে করা একটা অপরাধ। বিয়ে হয়ে গেলেও আইনগত ব্যবস্থা নেবার সুযোগ রয়েছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন : ধন্যবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ ধরনের আরো সংবাদ

আমাদের রূপসী ইউটিউব চ্যানেল

সম্পাদক ও প্রকাশক : মো: রবিউল ইসলাম তোতা

প্রধান কার্য্যালয় : রামনগর পূর্ব রূপসা, রূপসা, খুলনা

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া কপি রাইট বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Hwowlljksf788wf-Iu