রবিবার, ০৯ মে ২০২১, ০৫:০৫ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম
ডুমুরিয়ায় ছাদ থেকে পড়ে বীর মুক্তিযোদ্ধার মৃত্যু বাবা- মায়ের উপর অভিমান করে ডুমুরিয়ায় গলায় ফাঁস দিয়ে একমাত্র ছেলের আত্মহত্যা! ডুমুরিয়ায় স্কুল পড়ুয়া শিশু কন্যাকে ধর্ষণের চেষ্টা: থানায় মামলা রূপসায় অনুশীলন মজার স্কুলের নবনির্মিত ভবনের শুভ উদ্বোধন ও সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করোনা সংক্রমণ রোধে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা মেনে চলার আহ্বান সালাম মূর্শেদীর বঙ্গবন্ধুকে ইতিহাস থেকে মুছে ফেলার জন্য নানাবিধ অপকৌশল অব্যাহত রয়েছে-রূপসায় সালাম মূর্শেদী বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের আদ্যপান্ত রূপসায় ব্যাচ ৯৫ সংগঠনের ইফতার মাহ্ফিল অনুষ্ঠিত মাটি খনন কালে ডুমুরিয়ার আটলিয়া থেকে পাথরের কৃষ্ণ মুর্তি উদ্ধার। ডুমুরিয়ায় শিল্পপতি আফজাল হোসেন জোয়ার্দারের উদ্যোগে উপহার সামগ্রী বিতরণ

দিঘলিয়ায় সমাজ পরিবর্তনে কাজ করছে “আলোর মিছিল“

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট টাইম মঙ্গলবার, ৩ নভেম্বর, ২০২০
  • ৩০৫ জন সংবাদটি পড়েছেন

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ ঘরের খেয়ে বনের মোষ দাবড়ানোর নাম হলো স্বেচ্ছাসেবক। কয়েকজন স্বেচ্ছাসেবক মিলে সমাজের উন্নয়ন মূলক কাজ করার জন্য যে সংগঠন করা হয় তাকে স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন বলে। চোখে-মুখে সোনালী স্বপ্ন নিয়ে খুলনা জেলার দিঘলিয়া উপজেলার একঝাঁক তরতাজা তরুন সমাজের উন্নয়নে ২০১৫ সালে প্রতিষ্ঠা করে আলোর মিছিল নামে একটি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন। হাঁটি হাঁটি পা পা করে অনেক চড়ায় উৎরায় পেরিয়ে আজ একটি শক্ত অবস্থানে দাড়িয়েছে।

শুরুটা হয়েছিল সংগঠনটির প্রতিষ্ঠাতা শেখ তারেকের হাত ধরে। নব্বইয়ের দশকে নদী-খাল -জলাশয়ে ছিল প্রচুর পরিমানে দেশীয় প্রজাতির মাছ, ইলিশ মাছে ঘ্রান, ভাইটেল চালের সুগন্ধ কিন্তু হটাৎ করে ইলিশের হারিয়ে যাওয়া, প্রাকৃতিক মাছ কমে যাওয়া ও ভাইটেল চাউলের সেই সুগন্ধ না থাকায় শেখ তারেক ১৫-২০ জন ক্ষুদে সাইক্লিস্ট নিয়ে বেরিয়ে পড়েন গ্রামে, গঞ্জে, খালে- বিলে। কিছুদিন পরে তারেকের এই ভাবনাটি শেখ রবিউল ইসলাম রাজিবের  হৃদয়ে দোলা দেয়।  তখন থেকেই তারেকের সহযোগী হিসেবে মাঠে কাজ শুরু করে  রবিউল ইসলাম রাজীব। একসময় তিনিও বুঝতে পারেন কেন এইসব ঐতিহ্য হারিয়ে গেলো, হটাৎ ইলিশ মাছ হারিয়ে যাওয়া, পাখি কমে যাওয়ার কারন। সমাজের বিভিন্ন অনিয়মের বিরুদ্ধে তারা যৌথভাবে প্রতিবাদ শুরু করল। ঠিক এভাবেই  স্বেচ্ছাসেবী সামাজিক সংগঠন আলোর মিছিলের পথচলা শুরু হয়। বর্তমানে সদস্য দুই শতাধিক হবে
শুরুতে আলোর মিছিলের সদস্য বলতে তারেক আর রজিীব সঙ্গে ছিল ১২-১৩ জন ক্ষুদে সাই ক্লিষ্ট।
চলতি বছর ফেব্রুয়ারী মাসে দিঘলিয়ার একটি প্রভাবশালি পাখি শিকারীদের আক্রমনের শিকার হয়েছিলো আলোর মিছিল।
দেশ-মা-মাটি মানুষের কল্যানে আলোর মিছিল জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব মোকাবেলায় সামাজিক সচেতনতায় কাজ করছে। কৃষি ও মৎস্য চাষ রাসায়নিক মুক্ত এবং জৈব কৃষির উপকারিতা সম্মন্ধে চাষিদের উদ্ভুদ্ধ করছে, বন্যপ্রানী ও পাখি সংরক্ষণে মাঠ পার্যায়ে কাজ করছে। খাল ও জলাশয়ের অবৈধ দখল ও দুষন মুক্ত রাখতে কাজ করছে। বৃক্ষরোপন কর্মসূচি পালনে এপর্যন্ত প্রায় পাঁচ হাজার তাল বীজ রোপন করেছে আলোর মিছিল।
 প্রজনন মৌসুমে মা ইলিশ রক্ষায় প্রশাসনকে সহযোগিতা করছে।
 বর্তমানে ১১ সদস্য বিশিষ্ট সন্মেলন প্রস্তুতি কমিটি আছে যার আহবায়ক সাবেক ছাত্রনেতা জি এম আকরাম ও সদস্য সচিব সন্মানিত শিক্ষক শেখ আল মামুন।
আলোর মিছিল চায় একটি বিশুদ্ধ পরিবেশ। যেখানে খাল জলাশয়ে থাকবে দেশীয় মাছের সম্ভার, পাখি কুলের কিচিরমিচির, সারি সারি বৃক্ষরাজী, প্রবাহমান খাল থাকবে শতভাগ দখলমুক্ত ও জাল পাটা মুক্ত ইত্যাদি।
উল্লেখযোগ্য সাফল্য বলতে আলোর মিছিলের দাবির প্রক্ষিতে সিভিল সার্জন খুলনা মহোদয়ের সহযোগিতায় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এ্যাম্বুলেন্সের ড্রাইভার নিয়োগ হয় এবং এখন প্রতিদিনই এই এ্যাম্বুলেন্সের সেবা পাচ্ছে দিঘলিয়ার জনগন।
আলোর মিছিলের নজরদারিতে মানুষের মাঝে কিছুটা সচেতনতার প্রতিফলন ঘটেছে।  খালে বিলের প্রাকৃতিক  মাছ বৃদ্ধি পেয়েছে। পাখির সংখ্যা বেড়েছে।
আলোর মিছিলের তদরকি ও প্রশাসনের জিরো টলারেন্স নীতি  থাকায় পাখি শিকারীর সংখ্যা অনেক হ্রাস পেয়েছে। সামাজিক অনিয়ম কিছুটা হলেও কমেছে বলে অনুমান করা যায়।

সংবাদটি শেয়ার করুন : ধন্যবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ ধরনের আরো সংবাদ

আমাদের রূপসী ইউটিউব চ্যানেল

সম্পাদক ও প্রকাশক : মো: রবিউল ইসলাম তোতা

প্রধান কার্য্যালয় : রামনগর পূর্ব রূপসা, রূপসা, খুলনা

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া কপি রাইট বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Hwowlljksf788wf-Iu