শনিবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৮:৫৫ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম

সুন্দরবনে ডিবি পুলিশের অভিযানে ৯ জেলে আটক

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট টাইম মঙ্গলবার, ১ ডিসেম্বর, ২০২০
  • ১৫৮ জন সংবাদটি পড়েছেন

নিজস্ব প্রতিবেদকঃখুলনা জেলা ডিবি পুলিশের বিশেষ অভিযান চালিয়ে দাকোপ থানাধীন কালাবগি সুন্দরবন এলাকার ভদ্রা নদী হতে ৪ টি বিভিন্ন সাইজের কাঠের তৈরী ডিঙ্গি নৌকা, ২৯০০ ফুট মাছ ধরার জাল, মাছ মারার কীটনাশক ৪ (চার) বোতল ও আনুমানিক ২৫ (পঁচিশ) কেজি চিংড়িসহ বিভিন্ন ধরনের মাছ’ সহ ০৯ জনকে গ্রেফতার করেছে।

খুলনার পুলিশ সুপার  এস.এম শফিউল্লাহ (বিপিএম) নির্দেশনায় জিএম আবুল কালাম আজাদ, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (দক্ষিণ) এর সার্বক্ষণিক তত্বাবধানে জেলা গোয়েন্দা শাখা, খুলনার ইনচার্জ সেখ কনি মিয়া এর নেতৃত্বে এসআই (নিঃ) এমডি আসাদুল ইসলাম সঙ্গীয় অফিসার ও ফোর্স সহ দাকোপ থানাধীন সুন্দরবন এলাকায় বিশেষ অভিযান পরিচালনাকালে

৩০নভেম্বর রাত ১২ টায়  শ্রীনগর অবস্থানকালে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে দাকোপ থানাধীন কালাবগি সুন্দরবন এলাকার ভদ্রা নদীর খালের মধ্যে কিছু অসাধু ব্যাক্তি খালে কীটনাশক প্রয়োগ করে মাছ শিকার করছিল। তাৎক্ষনিকভাবে সঙ্গীয় অফিসার ও ফোর্স সহ ট্রলার যোগে দ্রুত রওনা হয়ে দাকোপ থানাধীন কালাবগি সুন্দরবন এলাকার ভদ্রা নদীর খালের মধ্যে উপস্থিত হইলে আসামীগন পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে ডিঙ্গি নৌকা নিয়ে পালানোর চেষ্টাকালে সঙ্গীয় অফিসার ও ফোর্সের সহায়তায় আসামি মোঃ রিয়াদুল হাওলাদার (৪০), পিতা- মোঃ মালেক হাওলাদার,  সাং- খেজুরিয়া, থানা- দাকোপ, জেলা-খুলনা, মোঃ রফিক খান (৪৫), পিতা- মৃত আব্দুল মজিদ খান,  সাং-খুন্তাকাটা, থানা-রায়েন্দা, জেলা-বাগেরহাট’  মোঃ মহিদ হাওলাদার (১৮), পিতা- মোঃ কালাম হাওলাদার, সাং-খেজুরিয়া,  মোঃ সাহিদুল্লাহ শেখ (২৮), পিতা-মোঃ আলী হাফেজ শেখ,  সাং- ঢাংমারি,মহিতোষ বাইন (৪০), পিতা- গোবিন্দ বাইন,  সাং-খেজুরিয়া, জাহাঙ্গীর হাওলাদার (৪৫), পিতা-মৃত মকবুল হাওলাদার, সাং- বানিয়াশান্তা,  মোঃ ইছাক মোল্যা (৩৮), পিতা- মৃত শামছুর মোল্যা,  সাং- কালাবগি (উত্তরপাড়া),  মোঃ শহিদুল হাওলাদার (৩৫), পিতা- মোঃ মালেক হাওলাদার,  সাং-খেজুরিয়া, ৯। মোঃ রুবেল গাজী (২৫), পিতা-মোঃ আহম্মদ গাজী,  সাং-খেজুরিয়া, সর্ব থানা-দাকোপ, জেলা-খুলনাদেরকে গ্রেফতার করে।

এ সংক্রান্তে জেলা গোয়েন্দা শাখা, খুলনার এসআই (নিঃ)/ এমডি আসাদুল ইসলাম বাদী হয়ে আসামিদের বিরুদ্ধে দাকোপ থানায় বন আইনে মামলা দায়ের করেন।

সুন্দরবনের প্রাকৃতিক সম্পদ গুলোর মধ্যে মাছ অন্যতম। সুন্দরবনের বুকের ভিতর দিয়ে বয়ে যাওয়া নদ-নদী ও খালের প্রচুর পরিমানে বিভিন্ন প্রজাতির মাছ পাওয়া যায়। জেলেরা অতিরিক্ত মুনাফা লাভের আশায় অবৈধভাবে বিভিন্ন প্রকার নিষিদ্ধ জাল ও কীটনাশক ব্যবহার করে মাছ আহরন করে থাকে। উক্ত কারণে সুন্দরবনের অভ্যন্তরে যে সমস্ত নদ-নদী ও খাল রয়েছে সে সমস্ত নদ-নদী ও খালের আহরণের উপযোগী মাছ ব্যতীত সকল মাছের রেনু, পোনার ব্যাপক ক্ষতি হয়ে থাকে। কিছু কুচর্ক্রী জেলে মহল সুন্দরবনের অভ্যন্তরে প্রবেশ করে অবৈধ কীটনাশক ব্যবহার করে সকল প্রকার মাছের রেনু, পোনার ব্যাপক ক্ষতিসহ প্রাকৃতিক সম্পদ বিনষ্ট করছে। সুন্দরবনের অভ্যন্তরে প্রাকৃতিক সম্পদ বিনষ্টকারী, ক্ষতিসাধনকারীদের বিরুদ্ধে জেলা পুলিশ, খুলনার অবস্থান জিরো টলারেন্স। যারা এ সমস্ত কাজে জড়িত তাদের প্রত্যেকে আইনের আওতায় আনা হবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন : ধন্যবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ ধরনের আরো সংবাদ

আমাদের রূপসী ইউটিউব চ্যানেল

সম্পাদক ও প্রকাশক : মো: রবিউল ইসলাম তোতা

প্রধান কার্য্যালয় : রামনগর পূর্ব রূপসা, রূপসা, খুলনা

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া কপি রাইট বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Hwowlljksf788wf-Iu