সোমবার, ০৮ মার্চ ২০২১, ০৫:১৩ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম
পাইকগাছায় পুলিশের অভিযানে একাধিক মামলার আসামী সন্ত্রাসী হালিম শিকারী আটক  ডুমুরিয়ার আটলিয়ায় ঐতিহাসিক ৭ মার্চ উদযাপন রূপসা থানার উদ্যোগে ঐতিহাসিক ৭ই মার্চ পালিত রূপসায় ঐতিহাসিক ৭ই মার্চ পালিত ডুমুরিয়া সদর ইউনিয়নের  গোলনা ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত পাইকগাছার চাঁদখালী ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আ’লীগের চুড়ান্ত প্রার্থী ৩ জন গারো নেতা পরেশ চন্দ্র মৃ এর ২৩ তম মৃত্যু বার্ষিকী পালিত হলো ডুমুরিয়া থানা পুলিশ প্রশাসনের উদ্যোগে আনন্দ উদযাপন অনুষ্ঠান দিঘলিয়া থানা পুলিশের উদ্যোগে ৭ই মার্চের আলোচনা সভা নানা কর্মসূচির মধ্য দিয়ে ডুমুরিয়ায় ৭ ই মার্চ উদযাপিত

ডুমুরিয়ায় এক প্রভাবশালী কর্তৃক প্রতিপক্ষকে হয়রানির অভিযোগ: অব্যহতির দাবী এলাকা বাসীর।

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট টাইম মঙ্গলবার, ৯ ফেব্রুয়ারী, ২০২১
  • ২৪৮ জন সংবাদটি পড়েছেন

 ডুমুরিয়া(খুলনা)সংবাদদাতাঃ ডুমুরিয়া থানার মান্দ্রা গ্রামের প্রভাবশালী সাত্তার গাজী কর্তৃক এলাকার একটি পরিবারের সদস্যদের বিরুদ্ধে মিথ্যা ও ষড়যন্ত্র মূলক মামলার পায়তারার অভিযোগ উঠেছে।

এ ঘটনায় সোমবার ভূক্তভোগী মাহাবুর গাজীসহ এলাকার ৫৩ জন সাধারণ মানুষ প্রতিকার চেয়ে ডুমুরিয়া থানা অফিসার ইনচার্জ বরাবরে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন। লিখিত অভিযোগে ও থানা পুলিশ সূত্র জানা গেছে,ডুমুরিয়া থানার ধামালিয়া ইউনিয়নের মান্দ্রা গ্রামের খোরশেদ গাজীর ছেলে সাত্তার গাজী পূর্ব শক্রতার জের ধরে এলাকার মৃত পীর মোহাম্মদ আলী গাজীর ছেলে মাহাবুর গাজী, ইনামুল গাজী ও নাজমুল গাজীর বিরুদ্ধে গত ২৬ জানুয়ারী জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধ এবং মৎস্য ঘেরে বিষ প্রয়োগ সংক্রান্ত থানায় একটি মিথ্যা ও ষড়যন্ত্র মূলক অভিযোগ দায়ের করে হয়রানির অপচেষ্টা করছেন। যা বর্তমানে থানা পুলিশের তদন্তাধীন রয়েছে।

অভিযোগে আরো বলা হয়েছে সাত্তার গাজী ২০১৫ সালে মাহাবুর গাজীসহ এলাকার জি,এম সাকী ইউনুস, জিয়াউর রহমান গাজী,সালমা খাতুনসহ আরো কয়েক জনের বিরুদ্ধে থানায় একটি মামলা দায়ের করে। পরবর্তিতে আদালতের বিচারে মামলাটি মিথ্যা হিসেবে প্রমাণিত হলেও সাত্তার গাজীর ষড়যন্ত্র থেমে থাকেনি। সম্প্রতি সাত্তার গাজী মাহাবুর গাজী সহ তার তিন ভাইকে অবৈধ অস্ত্র দিয়ে ফাঁসানোর অপচেষ্টা চালালে গ্রাম বাসীর প্রতিরোধের মূখে তা ব্যর্থ হয়। এ ছাড়া সাত্তার গাজীর বিরুদ্ধে সরকারি দলের নাম ভাঙ্গিয়ে মান্দা এলাকার ওয়াপদার রাস্তার লাখ লাখ টাকা মূল্যের সরকারি গাছ বিক্রি করে আত্মসাতের অভিযোগে রয়েছে।

বিষয়টি সরেজমিনে তদন্ত করে প্রকৃত সত্য উদঘাটন পূর্বক মিথ্যা অভিযোগের দায় হতে মাহাবুর গাজী ও তার ভাইদের অব্যহতি দিতে এলাকা বাসী থানা অফিসার ইনচার্জ বরাবর লিখিত দাবী জানিয়েছে। এ বিষয়ে সাত্তার গাজীর সাথে ফোনে যোগাযোগ করার চেষ্টা করলেও তাকে পাওয়া যায়নি। এলাকাবাসীর লিখিত অভিযোগ প্রাপ্তির বিষয়টি নিশ্চিত করে থানা অফিসার ইনচার্জ মোঃ ওবাইদুুর রহমান বলেন, উভয় পক্ষের অভিযোগ তদন্ত করে রিপোর্ট দেয়ার জন্য একজন অফিসারকে দায়ীত্ব দেয়া হয়েছে। রিপোর্ট পেলে পরবর্তি পদক্ষেপ নেয়া হবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন : ধন্যবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ ধরনের আরো সংবাদ

আমাদের রূপসী ইউটিউব চ্যানেল

সম্পাদক ও প্রকাশক : মো: রবিউল ইসলাম তোতা

প্রধান কার্য্যালয় : রামনগর পূর্ব রূপসা, রূপসা, খুলনা

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া কপি রাইট বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Hwowlljksf788wf-Iu