বৃহস্পতিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২১, ০৮:২৯ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম
রূপসায় কোভিড-১৯ মহামারী কালীন সময়ে সমস্যা বিষয়ক সেমিনার অনুষ্ঠিত ডুমুরিয়ার  খর্ণিয়া  ও মাগুরাঘোনা ইউনিয়ন বিএনপি’র প্রস্তুতি মূলক সভা অনুষ্ঠিত খুলনার তেরখাদায় জমি-জমা সংক্রান্ত বিরোধে যুবক খুন সল্প বা‌হির‌দিয়া ইউ‌নিয়ন এসডিজি ফোরামের ইন্টারেক্টিভ সভা অনুষ্ঠিত ডুমুরিয়ায় নারী নির্যাতন এবং বাল্যবিয়ে প্রতিরোধ প্লাটফর্মের এ্যাডভোকেসি সভা অনুষ্ঠিত খুলনার রূপসায় অস্ত্র-গুলিসহ যুবক গ্রেফতার ফকিরহাটে ৫টি গাঁজা গাছসহ যুবক আটক রূপসায় প্রয়াত হারুন সরদারের স্মরণ সভায় সিটি মেয়র- আওয়ামীলীগের সাথে সরদার হারুনের ছিল রক্তের সম্পর্ক ডুমুরিয়া সদর ইউনিয়ন বিএনপির প্রস্তুুতি মূলক সভা অনুষ্ঠিত দাকোপে নারী নির্যাতন এবং বাল্যবিয়ে প্রতিরোধ প্লাটফর্মের এ্যাডভোকেসি সভা

শক্তিমান অভিনেতা এটিএম সামছুজ্জামান চলে গেলেন না ফেরার দেশে !

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট টাইম শনিবার, ২০ ফেব্রুয়ারী, ২০২১
  • ২৭ জন সংবাদটি পড়েছেন

সোনালী ডেক্সঃবাংলাদেশ চলচিত্রের শক্তিমান অভিনেতা একু‌শে পদকপ্রাপ্ত প্রবীণ অভিনয় শিল্পী এটিএম শামসুজ্জামান চলে গেলেন না ফেরার দেশে। (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)

তার পারিবারিক সূত্রে জানা যায় গত বুধবার শ্বাসকষ্ট শুরু হলে এটিএম শামসুজ্জামানকে রাজধানীর আজগর আলী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে ড. আতাউর রহমান খানের তত্ত্বাবধানে চিকিৎসাধীন ছিলেন। তিনি হাসপাতালে থাকতে না চাওয়ায় গতকাল শুক্রবার বিকালে তাকে বাসায় নিয়ে যাওয়া হয়।

এর আগেও বার্ধক্যজ‌নিত অসুস্থতার কা‌র‌ণে কয়েক মাস এ হাসপাতা‌লে থাকতে হ‌য়ে‌ছিল তাকে। অসুস্থতার কারণে দীর্ঘদিন যাবৎ অভিনয় থেকেও দূরে ছিলেন তিনি। ১৯৪১ সালের ১০ সেপ্টেম্বর নোয়াখালীর দৌলতপুরে নানাবাড়িতে জন্মগ্রহণ করেন এ টি এম শামসুজ্জামান। গ্রামের বাড়ি লক্ষ্মীপুর জেলার ভোলাকোটের বড়বাড়ি আর ঢাকায় থাকতেন দেবেন্দ্র নাথ দাস লেনে।

এ অভিনেতার চলচ্চিত্রে অভিষেক হয় ১৯৬৮ সালে নারায়ণ ঘোষ মিতা পরিচালিত ‘এতটুকু আশা’ চলচ্চিত্রের মধ্য দিয়ে। অভিনয়ের দীর্ঘ ক্যারিয়ারে পাঁচবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেয়েছেন তিনি। অভিনয়ের বাইরে পরিচালক, কাহিনীকার, চিত্রনাট্যকার হিসেবেও তিনি পরিচিত।

১৯৬১ সালে পরিচালক উদয়ন চৌধুরীর ‘বিষকন্যা’ চলচ্চিত্রে সহকারী পরিচালক হিসেবে কাজ শুরু করেন এটিএম শামসুজ্জামান। প্রথম কাহিনি ও চিত্রনাট্য লিখেন ‘জলছবি’ চলচ্চিত্রের জন্য। এ পর্যন্ত তিনি শতাধিক চিত্রনাট্য ও কাহিনি লিখেছেন। প্রথম দিকে কৌতুক অভিনেতা হিসেবে চলচ্চিত্র জীবন শুরু করেন। ১৯৭৬ সালে চলচ্চিত্রকার আমজাদ হোসেনের ‘নয়নমণি’ চলচ্চিত্রে খলনায়কের চরিত্রে অভিনয়ের মাধ্যমে আলোচনায় আসেন তিনি। শিল্পকলায় অবদানের জন্য ২০১৫ সালে বাংলাদেশের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ বেসামরিক পুরস্কার একুশে পদক লাভ করেন এ শিল্পী।

সংবাদটি শেয়ার করুন : ধন্যবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ ধরনের আরো সংবাদ

আমাদের রূপসী ইউটিউব চ্যানেল

সম্পাদক ও প্রকাশক : মো: রবিউল ইসলাম তোতা

প্রধান কার্য্যালয় : রামনগর পূর্ব রূপসা, রূপসা, খুলনা

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া কপি রাইট বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Hwowlljksf788wf-Iu