বৃহস্পতিবার, ১৫ এপ্রিল ২০২১, ০২:২০ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম
ব‌টিয়াঘাটায় করোনা স‌চেতনতায় এস‌ডি‌জি ফোরা‌মের প্রচারাভিযান কুষ্টিয়ায় সংবাদ প্রকাশের জের ধরে পত্রিকা সম্পাদককে হুমকি ! বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির নব নির্বাচিত সভাপতি আব্দুল মতিন খসরু আর নেই ! খুলনার তেরখাদায় ডিবি পুলিশের অভিযানে ২৫০ গ্রাম গাঁজাসহ আটক-১ হেফাজতের নায়েবে আমিরের পদ থেকে সরে দাড়ালেন মোহাম্মদ হাসান মেডিকেলে ভর্তির সুযােগ পাওয়া রাশেদুলের পড়ালেখার সহযােগিতায় মানবিক সাহায্যের হাত বাড়ালেন কেন্দ্রীয় যুবলীগ নেতা মোঃ নুর আলম মিয়া। রূপসায় নারী উন্নয়ন ফোরামের অর্থায়নে দুঃস্থ মহিলাদের মাঝে সেলাই মেশিন বিতরণ। খুলনার তেরখাদায় ট্রলি-ইজিবাইক সংঘর্ষে নিহত- ১ কুষ্টিয়ায় আবারো দূর্নীতির মহোৎসবে মেতেছে ইউপি চেয়ারম্যান ওমর ফকিরহাট থেকে অপহৃত ইজিবাইক চালকের মৃতদেহ পিরোজপুর থেকে উদ্ধার !

একজন স্বেচ্ছাসেবকের মানবিক আবেদন !

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট টাইম সোমবার, ১ মার্চ, ২০২১
  • ৮১ জন সংবাদটি পড়েছেন

এফ এম বুরহানঃ আপনার বিপদে সকলের আগে পাশে পাবেন স্বেচ্ছাসেবকদের । আপনার বিপদে এগিয়ে আসে স্বেচ্ছাসেবক, একজন রাজনৈতিক নেতা কখনো আপনার পাশে সহজে পাবেন না, কারণ তারা তাদের স্বার্থ ছাড়া এক পা ও হাটে না‌। তার প্রমাণ আজ অলিতে গলিতে, কলেজ, ভার্সিটি সহ সব জায়গায়, সব জায়গায় আজ মানুষ কাজ করে স্বার্থের জন্য । কলেজের বড় ভাইরা প্রিন্সিপাল স্যার এর কাছে আপনার জন্য যেকোনো বিষয়ে সুপারিশ করে বিনিময়ে টাকা নেয়। আপনার এলাকার মেম্বার, চেয়ারম্যান, কাউন্সিলর, মেয়র সহ প্রশাসনের লোক আপনাকে কোন উপকার করলে তার বিনিময়ে বিশাল অঙ্কের টাকা বা অন্য কিছু চায় । অথচ, একজন স্বেচ্ছাসেবক কখনো তার কাজের বিনিময়ে তার পারিশ্রমিক চাই না । বিনামূল্যে আপনার উপকার করে সবসময় । কিন্তু তার মুল্যে পাই শত ব্যাথা বেদনা। আমরা স্বেচ্ছাসেবকরা সারাদিন অক্লান্ত পরিশ্রমের মাধ্যমে আপনাদেরকে আপনার যথা সময়ে আপনার প্রয়োজনে আপনার কাছে রক্ত নিয়ে পৌঁছে যায় । স্বেচ্ছাসেবকদের ও তো লেখা পড়া ব্যবসা বাণিজ্য আছে, তা রেখে আপনার পাশে আপনার প্রয়োজনে দৌড়ে ছুটে যায় তার ব্যবসার ক্ষতি করে, তার লেখা পড়ার ক্ষতি করে । কিন্তু কখনো কি তাদের খেয়াল রেখেছেন তাদের, রাখেন নাই ।

অনুরোধ স্বেচ্ছাসেবকদের সাপোর্ট দিন যারা আপনার পিছনে বিনিময় ছাড়া আপনার কাজে সহযোগিতা করে, তাদের একটু খোঁজ নিন। ভালোবাসুন স্বেচ্ছাসেবকদের , আপনার বিবাহ অনুষ্ঠানে ৪-৫ হাজার লোকের খাবারের অনুষ্ঠান করে আপনার আত্মীয় স্বজনদের দাওয়াত দিয়ে আপ্যায়ন করেন। অথচ আপনার দাম্পত্য জীবনে যখন আপনি বাবা হবেন, যখন আপনার স্ত্রী মা হবে, তখন প্রসব বেদনায় আপনার স্ত্রী যন্ত্রণায় ছটফট করে হাসপাতালে, তখন কিন্তু ১০ হাজার টাকা খরচ করে আপনার বিবাহ অনুষ্ঠানে আসা আত্মীয়-স্বজনদের ও খুঁজে পান না বা পাবেন না আপনার বিপদের সময় আপনার পাশে।

অথচ তখন আপনার করুণ অবস্থায় আপনার পাশে একজন রক্ত দাতা নিয়ে ছুটে চলে যায় আপনার বিবাহ অনুষ্ঠানে দাওয়াত না পাওয়া স্বেচ্ছাসেবক। আপনার প্রয়োজনে আপনি একজন স্বেচ্ছাসেবককে রাত ৩ টা নেই, ৪ টা নেই তার বাড়ি গিয়ে তার আরামের ঘুম হারাম করে তার সামনে আপনার চোখের জল ছেড়ে দিয়ে পা ধরে কাঁদতে কাঁদতে বলেন যে, আমার বৌ/বোন/মা/বাবা/ভাই/পিতা গ্রুত্বর অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি। ভাই ৭-১১ ব্যাগ রক্তের প্রয়োজন তুই কিছু একটা কর । আপনার কান্না দেখে ঐ রাতেই নিজের ঘুম বাদ দিয়ে ফোনে সিম কম্পানি থেকে টাকা ঋণ নিয়ে ডোনার কে কল দিয়ে ভাঙ্গা সাইকেল নিয়ে ডোনারের বাড়ি গিয়ে ডোনার ম্যানেজ করে হাসপাতালে আপনার মুমূর্ষু রোগীর পাশে ছুটে যায় একজন স্বেচ্ছাসেবক ।

আপনাদের জন্য স্বেচ্ছাসেবকদের চাকরি হয়না দিনে ২৪ ঘণ্টা সপ্তাহে ৭ দিন স্বেচ্ছাসেবকদের মোবাইলে কল বাজতেই থাকে ভাই রক্ত লাগবে, রক্ত লাগবে । আপনাদের কল রিসিভ করতে করতে আর আপনাদের জন্য ডোনার ম্যানেজ করতে করতে হয়রান হয়ে যায় স্বেচ্ছাসেবক। আর গালি গালাজ শোনে দোকানের ম্যানেজার, মাহাজনের কাছে। উঠতে বসতে চাকরি যায় কম্পানি থেকে কম্পানির বস গালি দেয় মা বাপ সহ , গালি গালাজ সহ্য করতে না পেরে চাকরি ছাড়ে স্বেচ্ছাসেবক। চাকরি ছেড়ে যখন নিরুপায় হয়ে এলাকার বড় ভাইদের কাছে রিকোয়েস্ট করে একটা চাকরি ম্যানেজ করে দেওয়ার জন্য, তাখন এলাকার বড় ভাইরা উত্তর দেয় , “তোকে চাকরি দেওয়া যাবে না, কারণ তুই একদিন‌ও চাকরিতে টিকবিনা”। কারণ জানতে চাইলে সে উত্তর পায়, “তোকে দিয়ে চাকরি হবে না” কারণ আবার জানতে চাইলে তিনি উত্তর দেন, “কারণ সারাদিন তোর ফোনে কল আসবে তুই ডোনার ম্যানেজ করার কাজে ব্যস্ত থাকবি তোর শিক্ষাগত যোগ্যতা থাকা সত্ত্বেও তুই চাকরি পাবি না, কারণ তুই একজন পরোপোকারী দয়ালু স্বেচ্ছাসেবক”।

যখন চাকরির জন্য সাপোর্ট পাইনা কারো কাছে, তখন হাতাশ হয়ে যখন নিজে স্বাধীন ভাবে ব্যবসা করবো আর মানুষের সেবা করবো বলে স্বল্প পুঁজিতে একটি ব্যবসা শুরু করি। তখন ও কারো কাছে সাপোর্ট পাইনা সে । তাকে রক্তের জন্য রাত ৩টার সময় ডাকতে আসা লোকটিও ব্যবসায়ীক লেনদেন করে অন্যের সাথে। চারিদিকে অন্ধকার দেখে নিজের পরিবারের কথা চিন্তা করে হয়তো একদিন সে আর মানুষের পাশে দাঁড়াতে পারে না, কারণ তার তো পরিবার আছে তার তো পেট ও পিঠ আছে । নিজের লেখা পড়া পরিবার পেট পিঠ চালাতে একদিন সে ছুটবে নিজের আদারের তাগিদে । সে হারিয়ে ফেলবে স্বেচ্ছাসেবীর পরিচয় থাকবে না আর স্বেচ্ছাসেবক, ঠিক তখনই এলাকার সাধারণ মানুষের কাছে অশ্লীল ভাষায় গালিগালাজ শোনবে স্বেচ্ছাসেবক।

লেখকঃ এফ এম বুরহান শিক্ষার্থী সরকারি সুন্দরবন কলেজ খুলনা প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক রূপসা ব্লাড কাফেলা

সংবাদটি শেয়ার করুন : ধন্যবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ ধরনের আরো সংবাদ

আমাদের রূপসী ইউটিউব চ্যানেল

সম্পাদক ও প্রকাশক : মো: রবিউল ইসলাম তোতা

প্রধান কার্য্যালয় : রামনগর পূর্ব রূপসা, রূপসা, খুলনা

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া কপি রাইট বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Hwowlljksf788wf-Iu