মঙ্গলবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০১:৩৮ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম
পাইকগাছায় বিচ্ছিন্ন ঘটনার মধ্য দিয়ে ৯টি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন সম্পন্ন এক রাতের বৃষ্টিতে ফের ডুবলো সাতক্ষীরা কালিগঞ্জের কৃষ্ণনগরে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে এক যুবকের মৃত্যু পলাশবাড়ীর কিশোরগাড়ী ইউপি চেয়ারম্যান রিন্টুসহ ৬ জুয়াড়ী  আটক সাদুল্লাপুরে জুয়া খেলার টাকা না পেয়ে স্ত্রীকে হত্যা আজ সাতক্ষীরার তালা উপজেলার ১১ইউপিতে নির্বাচন,ঝুঁকিপূর্ণ কেন্দ্র৩২টি আজ নোয়াখালীর ১৩ ইউনিয়নে নির্বাচন, প্রচারণায় মুখর ছিল চরাঞ্চলের জনপদ সাতক্ষীরায় এসিড সারভাইবারদের বাড়িতে হামলা  মারধর ভাংচুরের বিচার দাবিতে মানববন্ধন কলারোয়ায় নির্বাচন উপলক্ষে আইন শৃঙ্খলা বিষয়ক ব্রিফিং সাতক্ষীরার আশাশুনি উপজেলার প্রতাপনগরের জনজীবন ভেলাই ভাসছে !

সরকারি নির্দেশনা অমান্য করে স্কুলে নেয়া হচ্ছে অ্যাসাইনমেন্ট ফি

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট টাইম বুধবার, ১ সেপ্টেম্বর, ২০২১
  • ৩৯ জন সংবাদটি পড়েছেন

নোয়াখালী প্রতিনিধি, শাহাদাৎ বাবুঃ সরকারী নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে নোয়াখালীর কবিরহাট উপজেলার সরকারি উচ্চবিদ্যালয়ে জনপ্রতি ৫০০ টাকা করে অ্যাসাইনমেন্ট ফি নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। এমন অভিযোগ করেছেন শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা।

গত ১৮ জুলাই মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের ‘২০২১ সালের এসএসসি পরীক্ষার্থীদের জন্য অ্যাসাইনমেন্ট ও মূল্যায়ন নির্দেশনা’ বিষয়ক বিজ্ঞপ্তির ৩ নম্বর নির্দেশনায় বলা হয়, ‘এ কার্যক্রমে যেন শিক্ষার্থীরা কোনো অনৈতিক চাপের মুখোমুখি না হয় তা লক্ষ্য রাখতে হবে। এছাড়া অ্যাসাইনমেন্ট সংক্রান্ত বিষয়ে শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে কোনো প্রকার ফি/পরীক্ষা ফি/মূল্যায়ন ফি বাবদ অর্থ নেওয়া যাবে না। এ বিষয়ে কোনো ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে অভিযোগ পাওয়া গেলে দ্রুততার সঙ্গে তদন্তপূর্বক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

কবিরহাট হাইস্কুলে বর্তমানে দশম শ্রেণিতে মানবিক বিভাগে ৯০ জন, বাণিজ্যিক বিভাগে ৬০ জন, বিজ্ঞান বিভাগে ৩৬ জন এবং ভোকেশনালে ৮০ জনসহ সর্বমোট ২৬৬ জন অধ্যয়নরত আছে। সেই হিসেবে জনপ্রতি অ্যাসাইনমেন্ট ফি ৫০০ টাকা করে আদায় করা হলে মোট ১ লাখ ৩৩ হাজার টাকা নেওয়া হচ্ছে শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে।

বিদ্যালয়ের এক শিক্ষার্থীর অভিভাবক শফিক আহমেদ বলেন, আমার ছোটো বোন এসএসসি পরীক্ষার্থী। তার কাছ থেকে ৫০০ টাকা নেওয়া হয়েছে অ্যাসাইনমেন্ট ফি। তবে পরে আমরা জানতে পারি, অ্যাসাইনমেন্ট ফি নেওয়ার বিষয়ে সরকারের নিষেধাজ্ঞা রয়েছে। অভিভাবকরা বিষয়টি জানেন না বলে কেউ প্রতিবাদ করেননি।

এ বিষয়ে বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার হাসিনা আক্তার বলেন, আমার বিষয়টি জানা ছিলো না। তবে আমি মাধ্যমিক অফিসারের সঙ্গে কথা বলেছি। তিনি আমাকে জানিয়েছেন, স্কুল থেকে যদি কোনো প্রিন্ট বাবদ টাকা নেওয়া হয়, সেটাও ২০-৫০ টাকার বেশি নেওয়ার সুযোগ নেই। আমরা বিষয়টি তদন্ত করে দেখব। এ ধরনের কোনো ফি আদায় করে থাকলে অবশ্যই ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন : ধন্যবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ ধরনের আরো সংবাদ

আমাদের রূপসী ইউটিউব চ্যানেল

সম্পাদক ও প্রকাশক : মো: রবিউল ইসলাম তোতা

প্রধান কার্য্যালয় : রামনগর পূর্ব রূপসা, রূপসা, খুলনা

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া কপি রাইট বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Hwowlljksf788wf-Iu