রবিবার, ২৪ অক্টোবর ২০২১, ০৬:২২ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম

দীর্ঘ দুই বছরের বেশি সময় ভূমি জটিলতায় বন্ধ থাকা মডেল মসজিদ নির্মাণ কাজ শুরুর আভাস

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট টাইম সোমবার, ৪ অক্টোবর, ২০২১
  • ২০১ জন সংবাদটি পড়েছেন
 শেখ রবিউল ইসলাম রাজিবঃ খুলনার দিঘলিয়া উপজেলা সদরে কেন্দ্রীয় জামে মসজিদ ভেঙ্গে বাংলাদেশ সরকারের সার্বিক সহযোগিতায় এই মডেল মসজিদ নির্মাণের কার্যাদেশ পায় ” টিচবি-মামুন (জেভি) কনস্ট্রাকশন নামে একটি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান ২০১৯ সালের জুন মাসে কার্যাদেশ পাওয়ার এক মাসের মধ্যে কাজ শুরু করার সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করে।

ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানটিকে কার্যাদেশ দেন খুলনার গণপূর্ত বিভাগ ১,  ধর্ম মন্ত্রণালয় থেকে জমি অধিগ্রহণের ছাড়পত্র না পাওয়ায় দুই বছরের বেশি সময় উপজেলার প্রধান এই মসজিদ নির্মাণ কাজ শুরু হয়নি। দীর্ঘদিন দিঘলিয়া উপজেলা মডেল মসজিদ নির্মাণ কাজ বন্ধ থাকায় আর্থিক ক্ষতির মুখে পড়েছে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান ” টিচবি-মামুন (জেভি)  কনস্ট্রাকশন।

গণপূর্ত বিভাগ খুলনা ১ সূত্রে জানা যায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অগ্রাধিকার প্রকল্পের আওতায় ইসলামী ফাউন্ডেশন এর মাধ্যমে ধর্ম মন্ত্রণালয় প্রতিটি জেলা ও উপজেলায় একটি করে মোট ৫৬০ টি মডেল মসজিদ ও ইসলামিক সাংস্কৃতিক কেন্দ্র নির্মাণের উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়। দিঘলিয়া উপজেলা সদরের মডেল মসজিদ নির্মাণে ৩১ শতাংশ জমির উপর ১৩ কোটি ২৫ লক্ষ টাকা ব্যয়ে মসজিদ কমপ্লেক্স নির্মাণের স্থান নির্ধারণ হয়। ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানকে কার্যাদেশের সময় বেঁধে দেওয়া হয় ১৮ মাস।

গত বছরের ডিসেম্বর মাসে নির্মাণ কাজ শেষ হওয়ার কথা থাকলেও ধর্ম মন্ত্রণালয় থেকে জমি অধিগ্রহণের ছাড়পত্র পেতে দেরি হওয়ায় দিঘলিয়ার আধুনিক এই মসজিদ নির্মাণ কাজ ব্যাহত হচ্ছে। দিঘলিয়া উপজেলা ইসলামিক ফাউণ্ডেশনের কর্মকর্তা মোঃ নুরুল ইসলাম এই প্রতিবেদককে বলেন মসজিদের লে-আউট দিতে গিয়ে দেখা যায় মসজিদের কেবলার অবস্থান হবে কৌনিক আকারের যার জন্য প্রস্তাবিত জমির পরিমান বেড়ে যায়। যেহেতু এই মসজিদ নির্মাণ করতে প্রস্তাবিত বরাদ্ধের বাইরে নতুন করে অর্থ বরাদ্ধ নিয়ে বেশ কয়েকবার দিঘলিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও খুলনা জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয় ও ইসলামিক ফাউণ্ডেশনের মহাপরিচালকের নিকট চিঠি পাঠানো হয়।

দীর্ঘ আড়াই বছর কাজ শুরু না করায় প্রশাসন ও স্হানীয় জনগণের মাঝে হতাশা থাকলেও গত ৩ রা অক্টোবর দিঘলিয়ায় দীর্ঘদিন স্থগিত থাকা মডেল মসজিদ এর স্থান পরিদর্শন করেন ইসলামিক ফাউণ্ডেশন খুলনা এর সদ্য বিদায়ী পরিচালক শাহীন বিন জামান, সদ্য যোগদানকৃত পরিচালক মোঃ রফিকুল ইসলাম, দিঘলিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ মাহবুবুল আলম, উপজেলা সহকারী কমিশনার ভূমি মোঃ আলীমুজ্জামান মিলন, ইসলামিক ফাউণ্ডেশন দিঘলিয়া এর ফিল্ড সুপারভাইজার মোঃ নুরুল ইসলাম, এমসি মোঃ হাফিজুর রহমান প্রমুখ।

সকল জটিলতার অবসান ঘটিয়ে দ্রুততম সময়ের মধ্যে মডেল মসজিদ নির্মাণ শুরু করার আশাবাদ ব্যক্ত করেন দিঘলিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ মাহবুবুল আলম। এই মডেল মসজিদ কমপ্লেক্স নির্মিত হলে এইই ভবনে নামাজ, ইসলামী সাংস্কৃতিক কেন্দ্র, ইসলামিক ফাউণ্ডেশনের উপজেলা কার্যালয় সহ সকল সুবিধা ভোগ করবে দ্বীপ বেষ্টিত দিঘলিয়া উপজেলার জনগন।

সংবাদটি শেয়ার করুন : ধন্যবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ ধরনের আরো সংবাদ

আমাদের রূপসী ইউটিউব চ্যানেল

সম্পাদক ও প্রকাশক : মো: রবিউল ইসলাম তোতা

প্রধান কার্য্যালয় : রামনগর পূর্ব রূপসা, রূপসা, খুলনা

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া কপি রাইট বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Hwowlljksf788wf-Iu